সরকারি হাসপাতালে নিয়োগ ৩২০০ সিভিক ভলান্টিয়ার

কলকাতা, ৩১ জানুয়ারি :  রাজ্যের মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল থেকে শুরু করে ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্র, প্রতিটি স্তরের হাসপাতাল এবং চিকিৎসা-শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে  ভলান্টিয়ার নিয়োগ করা হবে। তাঁদের চুক্তির মেয়াদ হবে এক বছর। এই ৩ হাজার ২০০ জনের মধ্যে ১ হাজার ৫০০ জন সিভিক ভলান্টিয়ারকে নিয়োগ করবে বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তর। তবে, বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তর থেকে পাঠানো সিভিক ভলান্টিয়াদের কতজনকে কোন কোন হাসপাতালে পাঠানো হবে তা কলকাতা পুলিশ কমিশনারের সঙ্গে আলোচনার পরই ঠিক হবে। বাকি ভলান্টিয়ারদের নিয়োগ করবে কলকাতা পুলিশ ও রাজ্য পুলিশ।

রাজ্যের ১৬টি মেডিকেল কলেজ এবং চিকিৎসা-শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জন্য ২৫ জন করে সিভিক ভলান্টিয়ার অর্থাৎ মোট ৪০০ জনকে নিয়োগ করা হবে। যেসব জেলা সদর হাসপাতালে শয্যার সংখ্যা ৩০০-র বেশি এমন ২১টি হাসপাতালের জন্য ২৪ জন করে সিভিক ভলান্টিয়ার নিয়োগের কথা বলা হয়েছে বিজ্ঞপ্তিতে। ৩০০-র কম শয্যা রয়েছে এমন জেলা সদর হাসপাতালের জন্য মাত্র ৩ জন সিভিক ভলান্টিয়ার নিয়োগ করা হবে।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়েছে, ৩০০-র বেশি শয্যা রয়েছে এমন ১০টি মহকুমা হাসপাতালের ক্ষেত্রে ১৬ জন করে সিভিক ভলান্টিয়ার নিয়োগ করা হবে। ৩০০-র কম শয্যা রয়েছে এমন ২৭টি মহকুমা হাসপাতালের ১১ জন করে সিভিক ভলান্টিয়ার নিয়োগ করা হবে। ১০০-টির বেশি শয‍্যা রয়েছে এমন ১৭টি স্টেট জেনেরাল হাসপাতালে ৯ জন করে এবং ১০০-র কম শয্যা রয়েছে এ রকম ৭টি স্টেট জেনেরাল হাসপাতালে ৭ জন করে সিভিক ভলান্টিয়ার নিয়োগের কথা হবে। ২৬৮ গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়োগ হবে ৫ জন সিভিক ভলান্টিয়ার। এছাডা়, ৭৮টি ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ৩ জন সিভিক ভলান্টিয়ার নিয়োগ হবে। ১০০-র বেশি শয্যা রয়েছে এরকম অন্য ৪টি হাসপাতালে ১৩ এবং ১০০-র কম শয্যা রয়েছে এরকম ২টি হাসপাতালে ৪ জন করে সিভিক ভলান্টিয়ার নিয়োগ করা হবে। 

অতিরিক্ত নিরাপত্তারক্ষী হিসাবে সিভিক ভলান্টিয়ার নিয়োগের এই নির্দেশকে স্বাগত জানিয়েছে ডাক্তারদের বিভিন্ন সংগঠন। তাঁদের আন্দোলনের জয় বলে দাবি ডাক্তারদের সংগঠনের। রাজ্যজুড়ে বিভিন্ন হাসপাতালে যেভাবে কর্তব্যরত ডাক্তাররা আক্রান্ত হচ্ছেন, তার জেরে গত বছরের ২ এপ্রিল ডাক্তারদের বিভিন্ন সংগঠনের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ওই বৈঠকে হাসপাতালে নিরাপত্তারক্ষী নিয়োগের প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *