বাবাকে ধারালো বঁটি দিয়ে কোপাল কলেজপড়ুয়া ছেলে

আইডিয়া টুডে নিউজ,  ক্যানিং, ৬ সেপ্টেম্বর:  চাহিদা মতো টাকা না পেয়ে বাবাকে ধারালো বঁটি দিয়েকোপাল গুণধর ছেলে। কলেজপড়ুয়া ছেলের হাতে গুরুতর জখম হয়ে বর্তমানে ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে চিকিত্‍সাধীন জয়দেব অধিকারী নামে ঐ ব্যক্তি। ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ ২৪ পরগণার জীবনতলা থানার অন্তর্গত পিয়ালিতে। অভিযুক্ত ছেলে প্রলয় অধিকারীর নামে ইতিমধ্যেই জীবনতলা থানার অন্তর্গত ঘুঁটিয়ারিশরীফ ফাঁড়িতে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন বাবা জয়দেব অধিকারী

জানাগেছে, বুধবার রাতে প্রলয় তার বাবার কাছে সাড়ে সাত হাজার টাকা চায়। কী কারণে ছেলে টাকা চায় তা জানতে চান জয়দেববাবু। কিন্তু ছেলে তা জানাতে অস্বীকার করে। সম্প্রতি প্রায় তেরো হাজার টাকা খরচ করে ছেলেকে বাঘাযতীন সম্মিলনী কলেজে ভর্তি করেছেন জয়দেববাবু। কিন্তু এরই মধ্যে কি কারণে আরও সাড়ে সাত হাজার টাকা লাগবে সেই প্রশ্ন তোলেন জয়দেববাবু। তিনি ছেলেকে বলেন, বই খাতা যদি কিছু লাগে তা তিনি কিনে দেবেন, কিন্তু নগদ টাকা হাতে দেবেন না। জয়দেববাবু জানতে পেরেছেন ছেলে অসত্‍ সঙ্গে মিশে নেশাভাঙ করতে শুরু করেছে। আর সেই কারণেই ছেলেকে টাকা দিতে অস্বীকার করেন।

অভিযোগ, এ নিয়ে ছেলেত সঙ্গে তীব্র বচসা হয়। সেই সময় ধারালো বঁটি নিয়ে বাবার মাথায় কোপ বসায় প্রলয়। রক্তাক্ত অবস্থায় লুটিয়ে পড়েন জয়দেব অধিকারী। খবর পেয়ে ছুটে আসেন প্রতিবেশীরা। তাদের সাহায্যে জয়দেববাবুর স্ত্রী তাকে ঘুঁটিয়ারিশরীফ ব্লক প্রাথমিক হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখান থেকে চিকিত্‍সকরা তাকে ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে স্থানান্তরিত করেন। এই ঘটনায় ইতিমধ্যেই ঘুঁটিয়ারিশরীফ ফাঁড়িতে অভিযোগ দায়ের করেছেন জয়দেববাবু। ছেলের শাস্তি চাইছেন তিনি। অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। ঘটনার পর থেকেই পলাতক অভিযুক্ত ছেলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *