২৫ বছরে ২১শে জুলাই, একনজরে জেনে নিন তার খুঁটিনাটি

আইডিয়া টুডে নিউজ, কলকাতা, ২০ জুলাইঃ প্রত্যেকবারের ন্যায় এই বছরও এই সমাবেশকে ঘিরে ধর্মতলায় সাজো সাজো রব। লোকসভা নির্বাচনের আগে একুশের মঞ্চ থেকেই আগামী নির্বাচনকে লক্ষ্য করে যে চূড়ান্ত বার্তা দিতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তা বলার অপেক্ষা রাখে না। শহীদ দিবসের এই বিশাল সমাবেশ প্রতিবছরই একটা আলাদা গুরুত্ব পেয়ে থাকে। শহীদ দিবসের প্রস্তুতি থেকে শুরু করে মঞ্চ ব্যবস্থাপনা কিংবা কর্মীদের যাতায়াতের পথ ও থাকার জায়গা সমস্ত প্রস্তুতি নিজে হাতে সামলান তৃণমূল নেত্রী।

এবছরও তৃনমূলের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, প্রত্যেকবার শহীদদের মর্যাদায় যেভাবে মঞ্চ তৈরি করা হয়, এবারও সেভাবেই তৈরি করা হচ্ছে একুশের মঞ্চ। সে ক্ষেত্রে নিরাপত্তার সঙ্গে কোনোভাবেই আপস করা হবে না। কয়েকদিন আগে মেদিনীপুরের প্রধানমন্ত্রীর সভায় যেভাবে প্যান্ডেলের একাংশ ভেঙে বহু মানুষ জখম হয়েছেন সেক্ষেত্রে বিজেপি নেতাদের কর্তব্য বিষয়ে প্রশ্ন তুলেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা।

এই পরিস্থিতিতেই তৃণমূলের তরফে জানিয়ে দেওয়া হয়, মঞ্চের নিরাপত্তা নিয়ে কোনো প্রশ্ন উঠবে না। কারণ তারা প্রতিবারই রীতিমত পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে এই মঞ্চ তৈরি করে। টানা ৬ দিন ধরে তৈরি হওয়া এই শহীদ দিবসের মঞ্চ প্রস্তুতি খুঁটিয়ে দেখে পরখ করে চূড়ান্ত সীলমোহর দেয় রাজ্যের পূর্ত দপ্তর। এর পাশাপাশি একুশে জুলাই এর নিরাপত্তায় হাওড়া ও শিয়ালদহ মতো বড় স্টেশনগুলোতে গ্রিন করিডোর তৈরি করছে পুলিশ।

এছাড়াও শনিবার মিছিলের ব্যস্ত সময় দুর্ঘটনা এড়াতে ফেরি পরিষেবা বন্ধ থাকবে বলে জানানো হয়েছে। গত বছরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী ধর্ম তলায় তৃণমূলের সমাবেশে পৌঁছতে হাওড়া স্টেশন ব্যবহার করেছিল এক লক্ষ কুড়ি হাজার মানুষ এবং শিয়ালদহে এসেছিলেন প্রায় দেড় লক্ষের কাছাকাছি মানুষ। এবার সেই সংখ্যাটা আরও বাড়বে নিশ্চিত জেনে স্টেশন চত্বর গুলিতে কলকাতা পুলিশ, আরপিএফ ও জিআরপির তরফে বাড়তি ফোর্স মোতায়েন করা হচ্ছে। শিয়ালদহে ডেডিকেটেড করিডোর তৈরি হচ্ছে। যারা হাওড়া স্টেশন হয়ে আসবেন তাদের সরাসরি হাওড়া ব্রিজে পৌঁছে দিতে গ্রিন করিডোর তৈরি করছে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *