বিশ্বকাপ স্বপ্নটা প্রায় শেষ হওয়ার পথে আর্জেন্টিনার

আইডিয়া টুডে নিউজ, ২২ জুনঃআগের ম্যাচের আইসল্যান্ডের সঙ্গে ড্র। ক্রোয়েশিয়ার সঙ্গে জয় না হোক, ড্র হলেও সুযোগটা বেঁচে থাকত আর্জেন্টিনার। কিন্তু ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত হয়ে বিশ্বকাপ স্বপ্নটা প্রায় শেষ হওয়ার পথে আর্জেন্টিনার। এখন শেষ ম্যাচে নাইজেরিয়াকে হারালেই শুধু হবে না, নির্ভর করতে হবে অনেক যদি কিন্তুর ওপর। তবে বাস্তবতা বলছে, এই দল নিয়ে পরের পর্বে যাওয়াটা এখন আর্জেন্টিনার জন্য অক্সিজেন ছাড়া এভারেস্টে ওঠার মতোই কঠিন।

স্কোরলাইন যা বলছে, আর্জেন্টিনা আসলে তার চেয়েও অনেক বেশি বাজে খেলেছে। তিনটি পরিবর্তন করে নামিয়েছিলেন সাম্পাওলি, কিন্তু আর্জেন্টিনায় খেলায় পরিকল্পনার কোনো ছাপই ছিল না। মেসি আগের দিন তাও কিছু সুযোগ পেয়েছিলেন, আজ একবার পোস্টে শট নেওয়া ছাড়া তেমন কিছু করতেই পারলেন না। আর্জেন্টিনা যে মেসির ঘাড়ে চড়ে বিশ্বকাপ বাছাই পার হয়েছে, এই দল যেন তার চেয়েও বেশি ছন্নছাড়া। ২০০২ সালের পর প্রথম বারের মতো বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব থেকে বাদ পড়ার লজ্জা এখন খুবই বাস্তব।

প্রথমার্ধে অবশ্য একটা করে সুযোগ পেয়েছিল আর্জেন্তিনা-ক্রোয়েশিয়া, কিন্তু দুই দলের কেউই তা কাজে লাগাতে পারেনি। ২৯ মিনিটে পেরেজ নষ্ট করলেন আর্জেন্টিনার সবচেয়ে সুবর্ণ সুযোগ। ক্রোয়েশিয়া ডিফেন্ডারদের ভুল বোঝাবুঝিতে বল পেয়ে গিয়েছিলেন বক্সে, কিন্তু ফাঁকা পোস্ট পেয়েও মারলেন বাইরে।

৩৩ মিনিটে মানজুকিচও পেয়েছিলেন দারুণ একটা সুযোগ। কিন্তু ডান দিক থেকে উড়ে আসা ক্রসে মাথা ছুঁইয়েও তা রাখতে পারলেন না পোস্টে। ৩৯ মিনিটে সালভিওকে ফাউল করার জন্য হলুদ কার্ড দেখেছেন রেবিচ।

প্রথমার্ধ শেষের ঠিক আগে মদ্রিচের পাস থেকে রেবিচ পেয়েছিলেন আরও একটা সুযোগ। কিন্তু বক্সের বাইরে থেকে তাঁর নেওয়া শট চলে যায় পোস্টের ওপর দিয়ে।

৫৩ মিনিটে গোলরক্ষক কাবায়েরোর ভুলে পিছিয়ে পড়ল আর্জেন্টিনা। ব্যাক পাস থেকে বল ক্লিয়ার করতে গিয়ে তুলে দিয়েছেন রেবিচের পায়ে, কাছ থেকে পাওয়া সহজ সুযোগটা কাজে লাগাতে ভুল করেননি। দারুণ এক ফিনিশিংয়ে বল জড়িয়ে দিয়েছেন জালে। এরপরেই দুইটি পরিবর্তন করেন সাম্পাওলি। আগুয়েরো ও সালভিওর জায়গায় নামান হিগুয়াইন ও পাভনকে। ৭১ মিনিটে পাউলো দিবালার শট চলে যায় বারের ওপর দিয়ে।

৬৩ মিনিটে হিগুয়াইনের পাস থেকে দারুণ একটা সুযোগ পেয়েছিলেন মেসি। কিন্তু তাঁর শট ঠেকিয়ে দেন ক্রোয়েশিয়া গোলরক্ষক।

৮১ মিনিটে লুকা মদ্রিচের বক্সের প্রায় ২৫ গজ দূর থেকে করা দুর্দান্ত গোলে আবারও এগিয়ে যায় ক্রোয়েশিয়া। খানিক পরেই আবারও এগিয়ে যেতে পারত, কিন্তু রাকিতিচের ফ্রিকিক ফিরে আসে পোস্টে লেগে। যোগ করা সময়ে দারুণ এক প্রতি আক্রমণ থেকে গোল করে আর্জেন্টিনার কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন রাকিতিচ।

আর্জেন্টিনা একাদশঃ কাবায়েরো, তালিয়াফিকো, ওটামেন্ডি, মেরকাদো, আকুনা, সালভিও, মাচেরানো, পেরেজ, মেসি, মেজা আগুয়েরো।

ক্রোয়েশিয়া একাদশঃ সুবাসিচ, ভ্রালিচকো, লভরেন, ভিদা, স্ট্রিনিচ, রাকিতিচ, ব্রজোভিচ, মদ্রিচ, রেবিচ, পেরিসিচ, মানজুকিচ সুত্র- ব্রেকিন বাংলা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *